আগামী ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের পানি ও স্যানিটেশন খাতে জনপ্রতি চাহিদা রয়েছে যথাক্রমে ৬১৫ এবং ২৭৮ টাকা। এ ক্ষেত্রে স্থানীয় চাহিদার ভিত্তিতে সময়মত বাজেট প্রেরনসহ সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে কার্যক্রম বাস্তবায়ন, অংশগ্রহণ ও মনিটরিংকে গুরুত্ব দিতে হবে বলে ইউনিয়ন পর্যায়ের প্রাক-বাজেট আলোচনায় এ তথ্য উঠে এসেছে। বেসরকারি সংস্থা ড্রপ আয়োজিত ইউনিয়ন পর‌্যায়ের প্রাক বাজেট আলোচনায় এসব তথ্য উঠে এসেছে। 

পানি ও স্যানিটেশন বাজেট নিয়ে কাজ করা বেসরকারী সংস্থা ড্রপ  এ বিষয়ে আরো জানায়, বাজেটকে কেন্দ্র করে জাতীয় পর্যায়ে বাজেট পূর্ব বিভিন্ন শ্রেণী পেশার সাথে অল্প বিস্তর আলোচনা হলেও গ্রামীণ জনপদের উন্নয়ন কেন্দ্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদের বাজেট নিয়ে আলোচনার চর্চা তেমন হয় না। অথচ দেশের ৪৫৫০টি ইউনিয়ন পরিষদের বাজেট প্রণয়ন প্রক্রিয়ায় জনগণের অংশগ্রহণের মাধ্যমে চাহিদা গ্রহণ এপ্রিল থেকে মে মাসের মধ্যে করার কথা সরকারীভাবে ঘোষিত।

সম্প্রতি দেশের ৪টি জেলার ২৪টি ইউনিয়নে পানি ও স্যানিটেশন খাত নিয়ে এ প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠিত হয় এবং ড্রপ এ প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। প্রায় ৬-৭শ জনগণের অংশগ্রহণে এই জনগুরুত্বপূর্ণ খাত পানি ও স্যানিটেশনের চাহিদার কথা উচ্চারিত হয় এবং জোড়ালোভাবে দাবি জানানো হয়। উক্ত আলোচনায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন সচিব, ইউনিয়ন সদস্য, বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠন নেটওয়ার্কের প্রতিনিধি, স্থানীয় সুশীল সমাজের সমন্বয়ে গঠিত বাজেট পরিবীক্ষণ ক্লাবের প্রতিনিধি, প্রত্যন্ত গ্রামের জনগণের সমন্বয়ে গঠিত স্বাস্থ্যগ্রামের প্রতিনিধি, শিক্ষক প্রতিনিধি, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিসহ সকলে সত:স্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

প্রাক-বাজেট আলোচনায় স্থানীয়দের আগামী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জন্য পানি, স্যানিটেশন ও পয়:পরিচ্ছন্নতার জন্য লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের জন্য ১৭০,৬১,৮৫০ টাকা, বরগুনা সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ৩৩০,৭১,৮০০ টাকা, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ১০৯,৮০,৬০০ টাকা এবং বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ১০৫,৬৬,২৫০ টাকার চাহিদা কথা উল্লেখ করা হয়।

২৪ ইউনিয়নের মোট জনসংখ্যা ৬৪৯,৩৮১জন। চলতি অর্থ বছরে স্থানীয়দের মোট চাহিদা ৫৮২,২৯,৫০০ টাকা। যার মধ্যে, গভীর নলকূপ ৪৯৬টি, অগভীর নলকূপ ১০৭৪টি, স্বাস্থ্যসম্মত ল্যাট্রিন ৫২৬২, গণশৌচাগার ৮ এবং ৩০টি পন্ড স্যান্ড ফিল্টার বা পিএসএফ দাবী উঠে আসে।


এ বিষয়ে ড্রপ- এর গবেষণা প্রধান মোহাম্মদ যোবায়ের হাসান জানান, বাজেট আলোচনায় গ্রামীণ জনপদের মানুষের চাহিদার কথা উঠে এসেছে। এ জন্য তিনি সরকারকে স্থানীয় চাহিদার ভিত্তিতে এ খাতে বাজেট বরাদ্দ করার আহবান জানান। বর্তমানে বাংলাদেশ পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্যবিধি বিষয়ে দক্ষিন এশিয়ার অনেক দেশ থেকে এগিয়ে রোল মডেল হিসেবে পরিচিত হয়েছে। এই সুনামকে অক্ষুন্ন রাখতে হলে সরকারসহ, জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠনের সকলকে একসাথে কাজ করে এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখার কথাও তিনি ব্যক্ত করেন।